রবিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২২
3.6 C
Toronto

Latest Posts

সুদের হার অপরিবর্তিত রাখলো ব্যাংক অব কানাডা

- Advertisement -

এ বছর কয়েক দফা সুদের হার বাড়ানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক, যা মার্চ থেকে শুরু হবে

ব্যাংক অব কানাডা বুধবারও সুদের হার অপরিবর্তিত রেখেছে। তবে মূল্যস্ফীতির লাগাম টানতে আগামীতে সুদের হার বাড়তে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। কানাডায় এখন তিন বছরের মধ্যে মূল্যস্ফীতির সর্বোচ্চ হার বিরাজ করছে।

এ বছর কয়েক দফা সুদের হার বাড়ানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক, যা মার্চ থেকে শুরু হবে। ২০২০ সালের মার্চ মাসে কোভিড-১৯ এর প্রথম ঢেউ শুরু হওয়ার পর থেকেই সুদের হার সর্বনি¤œ অবস্থান দশমিক ২৫ শতাংশে অপরিবর্তিত রেখেছে ব্যাংকটি।

- Advertisement -

ব্যাংক অব কানাডা বলছে, শ্রম বাজারসহ বিভিন্ন সূচক এই ইঙ্গিত দিচ্ছে যে, অর্থনীতি পূর্ণ সক্ষমতায় চলছে। অধিকাংশ মানদ-েই শ্রম বাজার মহামারি পূর্ববর্তী অবস্থঅয় পৌঁছে গেছে। গত কয়েক মাসে প্রবৃদ্ধি জ্যেষ্ঠ নীতি নির্ধারকদের ধারণাকে ছাড়িয়ে গেছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংক কেন নীতি নির্ধারণী সুদের হার সর্বনি¤েœ রাখার প্রতিশ্রুতি থেকে সরে আসছে অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়ানো তার কারণ। গভর্নর টিফ ম্যাকক্লেম বলেন, মূল্যস্ফীতির হার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ২ শতাংশের মধ্যে রাখার লক্ষ্যে সুদের হার বাড়ানো প্রয়োজন। তারপরও বুধবার সুদের হার অপরিবর্তিত রাখার কারণ হিসেবে দেশে ও দেশের বাইরে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের বিস্তারের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

এর পর যেটা হবে তা হচ্ছে সুদের হার বৃদ্ধি এবং এর সম্ভাব্য প্রভাব নিরূপন স্থগিত রাখা। ম্যাকক্লেম বলেন, প্রতেক্য সভায় এ ধরনের সিদ্ধান্ত কী মাত্রায় এবং কত দ্রুত নেওয়া হবে তা নির্ভর করছে অর্থনীতি ও মূল্যস্ফীতি কোন দিকে যাচ্ছে তার ভিত্তিতে। আমাদের বক্তব্য হচ্ছে মূল্যস্ফীতি লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে নিয়ে আসা।

ডেসার্ডিনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রয়েস মেন্ডেস বলেন, সুদের হার বাড়াতে ব্যাংক অব কানাডার মার্চ পর্যন্ত অপেক্ষার প্রভাব অর্থনীতি ও মূল্যস্ফীতির ওপর সামান্যই পড়বে। ডিসেম্বরে সুদের হার না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত সত্ত্বেও কোনো ধরনের সতর্কতা ছাড়াই বুধবার তা বাড়ানো হলে ব্যাংক অব কানাডার বিশ^াসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতো। সুদের হার বৃদ্ধিতে তাড়াহুড়া না করাটাই বেশি নিরাপদ।

ব্যাংক অব কানাডা তাদের হালনাগাদ ইকোনমিক আউটলুকে এই বলে সতর্ক করে দিয়েছে যে, দ্রুত মূল্যবৃদ্ধির পীড়া ভোক্তাদের সহ্য করতে হবে। বিশেষ করে মুদি পণ্যের। কারণ, বছর শেষে মূল্যস্ফীতি সহনীয় পর্যায়ে নামার আগ পর্যন্ত প্রথম প্রান্তিকেই তা ৫ শতাংশে পৌঁছাতে পারে।

২০২২ সালে মূল্যস্ফীতির হার ৪ দশমিক ২ শতাংশে দাঁড়াতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে ব্যাংক অব কানাডা। অক্টোবরে ব্যাংকের পূর্বাভাস ছিল যেখানে ৩ দশমিক ৪ শতাংশ।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.