শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
-4.1 C
Toronto

Latest Posts

লেকহেড বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা শিক্ষক ড. নাসির উদ্দিন

- Advertisement -
অধ্যাপক ড. নাসির উদ্দিন

কানাডার লেকহেড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা বিষয়ক সিনেট কমিটি ২০২৩ সালের সেরা শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত করেছেন বাংলাদেশী প্রবাসী অধ্যাপক ড. নাসির উদ্দিন। গত ৪ঠা আগস্ট কানাডার লেকহেড বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ কৌশিল বিভাগের অধ্যাপক ড. নাসির উদ্দিনকে সেরা শিক্ষক নির্বাচিত করেন। ড. নাসির উদ্দিন রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার গোহাইলবাড়ি গ্রামের আরশেদ আলী মন্ডলের ছেলে। চার বোন ও তিন ভাইয়ের মধ্যে নাসির দ্বিতীয়। স্ত্রী ও একমাত্র মেয়েকে নিয়ে তিনি কানাডার অন্টারিওর ব্যারি শহরে বাস করেন। অধ্যাপক ড. নাসির উদ্দিন বলেন, সম্প্রতি লেকহেড বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট কমিটি তাকে সেরা শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত করেছেন।

এতে তিনি খুবই সম্মানিত বোধ করেছেন। এ প্রাপ্তিতে তার পরিবার, সহকর্মী তথা বিশ্ববিদ্যালয়ের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন। দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেছেন। তিনি বলেন, শিক্ষক হিসেবে এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ সম্মান। শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে মনোনীত হবার জন্য একজন শিক্ষকের অনেক বছর ধরে শিক্ষাদানের ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রাখা এবং নেতৃত্বদানসহ অভিনব পদ্ধতিতে শিক্ষাদানের অভিজ্ঞতা বিবেচনা করা হয়। এসকল যোগ্যতার ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা বিষয়ক সিনেট কমিটি প্রতি বছর একজন শিক্ষককে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে নির্বাচিত করে থাকেন।

- Advertisement -

তারই ধারাবাহিকতায় ২০২৩ সালের শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নির্বাচিত হয়েছেন তড়িৎ ও কম্পিউটার কৌশল বিভাগের অধ্যাপক ড. মোঃ নাসির উদ্দিন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট ড. জিলিয়ান সিডাল আগামী ৩০ শে অক্টোবর সিনেট মিটিংয়ের ড. নাসিরের হাতে সেরা শিক্ষকের সম্মাননা ও সনদ প্রদান করবেন। ড. নাসির উদ্দিনকে অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে সর্বসাধারণের জন্য বক্তব্য প্রদানের মাধ্যমে সম্মান জানানো হবে। সর্বশেষ আগামী বছর সমাবর্তন (জুন ২০২৪ইং) অনুষ্ঠানে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক হিসেবে জনসাধারণের সামনে সম্মান জানানো হবে। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ড. নাসির উদ্দিন বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ কৌশল বিভাগ থেকে ১৯৯৩ সালে ১ম শ্রেণীতে ২য় স্থান অধিকার করে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী লাভ করেন। এরপর একই বিভাগে যোগদান করে তিন বছরের অধিক সময় শিক্ষকতা করেন এবং পরবর্তীতে কমনওয়েলথ বৃত্তি নিয়ে কানাডার মেমোরিয়াল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০০০ সালে ডক্টরেট ডিগ্রী অর্জন করেন।

সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে তিনি গ্রামে ২০১১ সালে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। যেটি বর্তমানে একটি সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘আরশেদ-সাজেদা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়’ হিসেবে জাতীয়করণ হয়। ড. নাসির ২০১১ সালে লেকহেড বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেষ্ঠ গবেষক হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছিলেন। এছাড়া ২০২১ সালে বৈদ্যুতিক মোটরের উপর গবেষণা এবং সমাজের উপর অসামান্য অবদান রাখায় তড়িৎ কৌশলের সর্বোচ্চ সম্মান আই,ই,ই,ই ফেলো নির্বাচিত হন। আই.ই.ই.ই তড়িৎ কৌশলের আর্ন্তজাতিক সংগঠন যা পৃথিবীর সর্ববৃহৎ পেশাজীবি সংগঠন। ইতিপূর্বে বৈদ্যুতিক মোটরের উপরে ড. নাসিরের অসাধারণ জ্ঞানের স্বীকৃতি স্বরুপ তার ছাত্ররা তাঁকে ‘মোটর মাস্টার’ উপাধিতে ভূষিত করেন।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.