বুধবার, মে ২৫, ২০২২
12 C
Toronto

Latest Posts

পিটিএসডি সিম্পটমে লং-টার্ম কেয়ার হোমের অধিকাংশ নার্স

- Advertisement -
টরন্টোর এল্ডারকেয়ার হোম হেলথ

কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে পোস্ট-ট্রমাটিক স্ট্রেস ডিজঅর্ডার (পিটিএসডি) সিম্পটম দেখা দিয়েছে অন্টারিওর লং-টার্ম কেয়ার হোমের বেশিরভাগ নার্সের মধ্যে। কোভিড সংক্রমিত কেয়ার হোমগুলোর ভয়াবহ দৃশ্য প্রত্যক্ষ করার কারণে এ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে বলে সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় উঠে এসেছে।

সংক্রমণের প্রথম ঢেউয়ের সময় লং-টার্ম কেয়ার হোমগুলোয় কাজের অভিজ্ঞতা রয়েছে এমন ৩ হাজার ৩০০ জনের ওপর সমীক্ষাটি চালিয়েছে অন্টারিও নার্সেস’ অ্যাসোসিয়েশন (ওএনএ)। সমীক্ষার ফলাফলকে ভয়াবহ আখ্যা দিয়ে ওএনএ বলেছে, পরিস্থিতি শুধু খারাপের দিকেই যাচ্ছে।

- Advertisement -

সমীক্ষার ফলাফল অনুযায়ী, ব্যাপক সংক্রমণের সময় লং-টার্ম কেয়ার হোমগুলোয় কাজ করা ৬০ শতাংশ নার্স পিটিএসডি সিম্পটন দেখা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। এসব নার্সদের অনেকেই কেয়ার হোমগুলোর কঠিন পরিস্থিতি প্রত্যক্ষ করেছেন, যখন কর্মী সংকটের পাশাপাশি ব্যক্তিগত সুরক্ষা উপকরণেরও অভাব ছিল।
অন্টারিওতে এ পর্যন্ত কোভিড-১৯ এ মৃত্যু হয়েছে মোট ৭ হাজার ২৪১ জনের। এর মধ্যে ৩ হাজার ৮৯১ জনই লং-টার্ম কেয়ার হোমগুলোর বাসিন্দা।

ওএনএর সমীক্ষা অনুযায়ী, যেসব কেয়ার হোমে সংক্রমণ কম ছিল সেখানে ব্যক্তিগত সুরক্ষা উপকরণের সরবরাহ তুলনামূলক ভালো ছিল। পাশাপাশি এসব কেয়ার হোমে কর্মীসংখ্যা তুলনামূলক বেশি থাকায় সংক্রমণ হ্রাসে দ্রুতগতিতে তারা আক্রান্তকে আইসোলেশনে নেওয়ার কাজটি করতে পেরেছেন।

লাভজনক ও অলাভজনক কেয়ার হোমের মধ্যে যে বড় ধরনের ফারাক আছে সেটিও সমীক্ষায় উঠে এসেছে। কর্মীসংখ্যা থেকে শুরু করে নেতৃত্ব ও পিপিইর প্রাপ্যতা সবক্ষেত্রেই লাভজনক কেয়ার হোমের তুলনায় অলাভজনক কেয়ার হোমগুলো ভালো করেছে।

সুস্থ ও অসুস্থ ব্যক্তির সামনে কেয়ার হোম ব্যবস্থাপকরা নার্সদের একই মাস্ক পরতে বলেছিলেন কিনা এই প্রশ্ন করা হয়েছিল সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের। এই প্রশ্নের হ্যা সূচক উত্তর দিয়েছেন অলাভজনক কেয়ার হোমের ২৪ ও লাভজনক কেয়ার হোমের ৪২ শতাংশ নার্স। সংক্রমণ দেখা না দেওয়া কেয়ার হোমগুলোর ৭০ শতাংশ নার্স এন৯৫ মাস্ক সরবরাহ না থাকার কথা জানালেও সংক্রমণ দেখা দেওয়া হোমগুলোর ৫১ শতাংশ নার্স একই উত্তর দিয়েছেন। খরচের বিষয়টি এক্ষেত্রে একটা ইস্যু ছিল বলে মনে করেন ২০ শতাংশ নার্স।

সমীক্ষার অংশ হিসেবে গত বছরের সেপ্টেম্বর ও অক্টোবরে নার্সদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। সীমাক্ষা অনুযায়ী, মহামারির সময় কর্মীসংখ্যার বিষয়টি গুরুতর ও ব্যপকভিত্তিক ইস্যু ছিল।

সংক্রমণ দেখা দেওয়া হোমগুলোতে নেতৃত্ব নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী অধিকাংশ নার্স। একই সঙ্গে আইসোলেশনে বিলম্ব ও পরিচ্ছন্নতার ইসস্যুটিও তুলেছেন তারা। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী অনেক নার্সের বক্তব্যÑমহামারি তাদের স্বাস্থ্য ও আর্থিক অবস্থারর ওপর আঘাত এনছে। প্রায় এক-তৃতীয়াংশ নার্সের কাছে নিজেদের অরক্ষিতও মনে হয়েছে।

কোভিড-১৯ আক্রান্তের যতœ কিভাবে নিতে হয় সে-সম্পর্কিত কোনো প্রশিক্ষণ পাননি বলে জানিয়েছেন সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ৪৩ শতাংশ নার্স।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.