বুধবার, নভেম্বর ৩০, ২০২২
4.8 C
Toronto

Latest Posts

ক্রিপ্টো কিংয়ের কাছ থেকে অর্থ উদ্ধারে মরিয়া বিনিয়োগকারীরা

- Advertisement -

ছবি/ফিল্ম ফ্রি ওয়ে

অন্টারিওর হুইবির স্বঘোষিত ক্রিপ্টো কিং ২৩ বছর বয়সী এইডেন প্লেটারস্কির কাছে বিনিয়োগকারীদের পাওনা দাঁড়িয়েছে কমপক্ষে ৩ কোটি ৫০ লাখ ডলার। কিন্তু তার সম্পদ যা আছে, তার মূল্য মাত্র ২০ লাখ ডলার। এর মধ্যে আছে দুইটি বিলাসবহুল ম্যাকলারেন্স, দুইটি বিএমডব্লিউ এবং একটি ল্যাম্বরগিনি।

এইডেন প্লেটারস্কি ও তার কোম্পানি এপি প্রাইভেট ইকুইটি লিমিটেডের হাতে ২ কোটি ডলার তুলে দেওয়া ১৫০ বিনিয়োগকারী অর্থ উদ্ধারে এখন আইনজীবী নরম্যান গ্রুটের সঙ্গে কাজ করছেন। ইনভেস্টিগেশন কাউন্সেল পিসির প্রতিষ্ঠাতা গ্রুট সিটিভি ন্যাশনাল নিউজকে বলেন, তহবিলটি কোথায় গেছে এই মুহূর্তে সেটি পরিস্কার নয়। তবে এটা ঠিক যে, এই অর্থের অনেকাংশই তার জীবনযাত্রায় খরচ হয়ে গেছে।
প্লেটারস্কি ১১টি বিলাসবহুল গাড়ির মালিক। বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাড়ায়ও নিয়েছেন। এছাড়া মাসিক ৪৫ হাজার ডলার ভাড়ায় বার্লিংটনে রয়েছে ভাড়া করা ওয়াটারফ্রন্ট হোম। পাশাপাশি রয়েছে পাঁচ থেকে ছয়টি ঘড়ি, যেগুলোর মূল্য ২ লাখ থেকে ৪ লাখ ডলারের মধ্যে। গ্রুট বলেন, প্রচুর অর্থ উড়িয়েছেন তিনি।

- Advertisement -

অন্টারিও সুপিরিয়র কোর্ট অব জাস্টিস গত ৯ আগস্ট প্লেটারস্কি ও তার কোম্পানিকে দেউলিয়া ঘোষণা করে। কিন্তু সম্পদ জব্দ করা গেেছ মাত্র ২২ লাখ ডলারের। এর মধ্যে রয়েছে ৩২ হাজারের ডলারের অলঙ্কার ও ব্যক্তিগত সামগ্রী, বেশ কয়েকটি বিলাসবহুল গাড়ি। এর মধ্যে ২০১৮ সালের ল্যাম্বরগিনি হ্যারিকেনের সর্বোচ্চ মূল্য হতে পারে ৩ লাখ ৫০ হাজার ডলার। এছাড়াও রয়েছে কিছু নগদ অর্থ ও ৬ লাখ ৬ হাজার ৭৭৩ ডলারের ব্যাংক ড্রাফট।

প্লেটারস্কির ব্যাংকরাপ্টসি ট্রাস্টি হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত রব স্টেলজার সিটিভি নিউজ টরন্টোকে বলেন, দেউলিয়া ঘোষিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে যে সম্পদ পাওয়া গেছে তার পরিমাণ অবশ্যই বিনিয়োগকারীদের পাওনার চেয়ে কম।
প্লেটারস্কি প্রত্যেক সপ্তাহকেই উইনিং সপ্তাহ ঘোষণা দিয়ে বিনিয়োগকারীদের ৫-৭ শতাংশ মুনাফার প্রতিশ্রুতি দিতেন বলে ২৯ আগস্ট ক্রেডিটরদের বৈঠকের নথিতে জানা গেছে। গ্রুট বলেন, লোকজন তার প্রতি আকৃষ্ট হতো। তারা তাকে তরুণ বিল গেটস মনে করতো।
বয়সে তরুণ হলেও প্লেটারস্কি ক্রিপ্টো কারেন্সিতে বিনিয়োগ শুরু করেন ২০১৫ সালে। গ্রুট বলেন, বিনিয়োগের বেশিরভাগ অর্থই তিনি নিয়েছেন যখন ক্রিপ্টো কারেন্সির মূল্য বাড়ছিল। কিন্তু দ্রুত এর মূল্য কমতে থাকলে লোকজন তাদের মুনাফা ফেরত চায়। কিন্তু তিনি পরিশোধ করতে পারেননি।

স্টেলজার বলেন, অনেকেরই অভিযোগ প্লেটারস্কি পঞ্জি স্কিম পরিচালনা করতেন। আমরা সেটি তদন্ত করে দেখছি। বিষয়টি আমরা খুবই গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি। আমরা জানি যে, বিপুল সংখ্যক বড় অংকের অর্থ পাবেন। তাদের অনেকেই সাধারণ মানুষ, যাদের বিনিয়োগের পরিমাণ ২৫ হাজার, ৫০ হাজার ও ১ লাখ ডলার। এ ধরনের লোকেদের কাছে পরিমাণটা বড়। আমি এবং গ্র্যান্ট থর্নটনের টিম যতটা সম্ভব অর্থ উদ্ধারে কঠোর চেষ্টা করছি।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.