সোমবার, মে ২৭, ২০২৪
18.3 C
Toronto

Latest Posts

টরন্টোবাসীর প্রতি ঘৃণা ও সহিংসতা প্রত্যাখ্যানের আহ্বান মেয়রের

- Advertisement -
ঘৃণা ও সহিংসতা প্রত্যাখানের জন্য টরন্টোবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মেয়র অলিভিয়া চাউ

ইসরায়েল-গাজা যুদ্ধের ফলে উত্তেজনা বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে ঘৃণা ও সহিংসতা প্রত্যাখানের জন্য টরন্টোবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন মেয়র অলিভিয়া চাউ। যুদ্ধের পরিপ্রেক্ষিতে ঘর-বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে লক্ষ্য করে হেইট ক্রাইমের ঘটনা ঘটছে।

১০ নভেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের চাউ বলেন, লোকজন খুবই ভয়ের মধ্যে আছে ও লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হচ্ছে বলে আমি শুনতে পাচ্ছি। নগরীতে অপরাধমূলক কার্যক্রমকে বিশেষভাবে উল্লেখ করে প্রতিদিনই টরন্টো পুলিশের কাছ থেকে টেক্সট মেসেজ পাচ্ছি। সম্প্রতি হেইট ক্রাইম বাড়তেও দেখা যাচ্ছে।
গত কয়েক সপ্তাহ ধরে টরন্টোতে ইহুদিবিদ্বেষী ঘটনা ব্যাপক হারে বাড়তে দেখা গেছে। ইহুদি বসতি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোকে লক্ষ্যে পরিণত করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে ভাংচুরও চালানো হচ্ছে। বে ও ব্লুর স্ট্রিটের কাছে একটি ইন্ডিগোর একটি স্টোর ও এর সিইও হিদার রিজম্যান এর সর্বশেষ শিকার হয়েছেন। একই সঙ্গে ইসলামোফোবিক ঘটনাও বাড়তে দেখা গেছে বলে জানিয়েছে টরন্টো পুলিশ।

- Advertisement -

চাউ বলেন, এসব হেইট ক্রাইমের ঘটনায় লোকজনকে লক্ষ্যবস্তু হতে দেখছি। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালিক কারা অথবা রেস্তোরাঁর নাম কী তার ভিত্তিতে সেগুলোকে লক্ষ্যবস্তু করা হচ্ছে। আমার মনে আছে, সারস এমনকি কোভিডের সময়েও গ্রহণযোগ্য কোনো কারণ ছাড়াই কিছু চীনা রেস্তোরাঁকে লক্ষ্যবস্তু করা হয়েছিল। এগুলো যখন ঘটে তখন সেটা নিছকই ঘৃণাত্মক।

তিনি বলেন, তাই এটা বলা আমার জন্য গুরুত্বপূর্ণ যে, টরন্টোতে ঘৃণার কোনো স্থান নেই। এখানে ইসলামোফোবিয়া ও ইহুদিবিদ্বেষের কোনো জায়গা নেই। লোকজনকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা উচিত নয়। কেবলমাত্র ধর্মবিশ^াসের কারণে অথবা তারা কে বা কোথা থেকে এসেছে তার ভিত্তিতে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করা ঠিক নয়।

আক্রান্ত ইন্ডিগো স্টোরের কয়েক কিলোমিটার পশ্চিমে ফিলিস্তিনি মালিকানাধীন একটি পিৎসা শপেও ভাংচুর করা হয়েছে। পুলিশ এ ঘটনার তদন্ত করে দেখছে। তবে ঘটনাটি বিদ্বেষপ্রসূত নয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।
পিৎসা শপটির মালিকদের একজন নাদের বলেন, ফিলিস্তিনি লোক হওয়া এই মুহূর্তে খুবই কঠিন। পৃথিবীতে ইহুদিদের জন্যও এখন খুবই কঠিন সময়। অসহিষ্ণুতা এমন পর্যায়ে চলে গেছে যেমনটা আগে কখনো দেখা যায়নি।

চাউ তার বিবৃতিতে বলেছেন, বৈশি^ক ঘটনাবলী লোকজনকে নাড়িয়ে দিলেও টরন্টোর পরিচিতি কঠিন এই বিশে^ শান্তির আলোকবর্তিকা হিসেবে। আমাদের বৈচিত্র্য, সমানুভূতি ও ঐক্য সারাবিশে^ অনন্য। এটাকে অবশ্যই সুমন্নত রাখতে হবে।

আমাদের শহরও নিখুঁত নয়Ñএ কথা মেনে নিয়ে তিনি বলেন, তারা কে বা তাদের ধর্মবিশ^াস কী তার ভিত্তিতে লেনকজনকে বর্তমানে লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হতে হচ্ছে। আপনাদের মেয়র হিসেবে একটা বিষয় আমাকে পরিস্কার করে বলতে দিন এবং তা হলো লোকজনের বিশ^াস ও ধর্ম পালনের স্বাধীনতার ওপর আঘাত এখানে মেনে নেওয়া হবে না। ব্যবসার নিরাপত্তায় হুমকি সত্য করা হবে না। সহিংসতা তা সে যেভাবেই হোক মানা হনে না। ঘৃণা বরদাশত করা হবে না।

বিবৃতিতে অবিলম্বে সব জিম্মিকে বিনাশর্তে ফিরিয়ে দেওয়া ও যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানানো হয়েছে।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.