মঙ্গলবার, জুন ১৮, ২০২৪
30 C
Toronto

Latest Posts

বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হলে বাড়ির মালিক উচ্ছেদ করতে চাইলে কী করবেন

- Advertisement -
ভাড়া পরিশোধ না করা অথবা মালিক বাড়ি সংস্কার করতে চাইলে, বিক্রি করতে চাইলে অথবা রেন্টাল ইউনিটে থাকতে চাইলে ভাড়াটিয়া উচ্ছেদের মুখে পড়তে পারেন

ভাড়া পরিশোধ না করা অথবা মালিক বাড়ি সংস্কার করতে চাইলে, বিক্রি করতে চাইলে অথবা রেন্টাল ইউনিটে থাকতে চাইলে ভাড়াটিয়া উচ্ছেদের মুখে পড়তে পারেন। এর বাইরেও ভাড়াটিয়ার আচরণ ও বাড়িটিকে তারা কীভাবে রেখেছেন তার ভিত্তিতেও উচ্ছেদের মুখে পড়তে পারেন।

এ ধরনের দুই ধরনের পরিস্থিতিতে উচ্ছেদের শিকার হতে পারেন ভাড়াটিয়া। একটি হচ্ছে অন্যদের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ, বাড়ির ক্ষতিসাধন অথবা বেশি লোক থাকা। দ্বিতীয়টি হচ্ছে বাড়ির অথবা কমপ্লেক্সের গুরুতর কোনো ক্ষতি করে থাকলে।

- Advertisement -

প্রথম ক্ষেত্রে ভাড়াটিয়া, অতিথি বা ভাড়াটিয়ার সঙ্গে বসবাসকারী অন্য কেউ বাড়ির মালিক বা অন্য ভাড়াটিয়াদের স্বস্তিতে বড় ধরনের ব্যাঘাত সৃষ্টি করলে অথবা বাড়ির মালিকের বৈধ অধিকার বা অগ্রাধিকারে হস্তক্ষেপ করলে ভাড়াটিয়াকে উচ্ছেদ করতে চাইতে পারেন বাড়ির মালিক। এমনটাই জানান পার্কডেল কমিউনিটি লিগ্যাল সার্ভিসেসের স্টাফ আইনজীবী স্যামুয়েল ম্যাসন। এমন হলে বাড়ির মালিক ভাড়াটিয়ার নামে ভাড়া বাতিল চেয়ে এন৫ নোটিশ ইস্যু করতে পারেন। ভাড়াটিয়া যদি নোটিশের সঙ্গে একমত হন তাহলে বিষয়টি সমাধানের জন্য সাতদিন সময় পেতে পারেন। তখন হয়তো মালিক ভাড়াটিয়াকে নোটিশে উল্লেখিত কারণে উচ্ছেদের জন্য ল্যান্ডলর্ড অ্যান্ড টেন্যান্ট বোর্ডে (এলটিবি) আর আবেদন করবেন না। কিন্তু সাতদিনের মধ্যে সমস্যা সমাধান না হলে অথবা গত ছয় মাসের মধ্যে এটা যদি দ্বিতীয় নোটিশ হয়ে থাকে এবং বাড়ির মালিক এলটিবিতে এল২ আবেদন করে থাকেন তাহলে তার ওপর শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

আর ভাড়াটিয়া যদি এন৫ এ উল্লেখিত অভিযোগ অস্বীকার করেন তাহলে তাদের আর অন্য কোনো কিছু করার প্রয়োজন নেই। বাড়ির মালিক তারপর ভাড়াটিয়াকে উচ্ছেদের আদেশ চেয়ে এলটিবিতে এল২ আবেদন করবেন। তবে শুনানির সময় এন৫ নোটিশে উল্লেখিত অভিযোগ যে সত্য সে সংক্রান্ত প্রমাণ হাজির করতে হবে বাড়ির মালিককে। এন৫ নোটিশ বাতিলের জন্য ভাড়াটিয়া যে সংশোধনমূলক কোনো পদক্ষেপ নেননি সেটাও প্রমাণ করতে হবে। ভাড়াটিয়াও তাদের দিকের ঘটনাগুলো তুলে ধরে মালিকের সঙ্গে বিরোধের বিষয়গুলো ব্যাখ্যা করার সুযোগ পাবেন।

বাড়ির মালিক যদি এমনটা মনে করেন যে, ভাড়াটিয়া, তাদের সঙ্গে বসবাসকারী অন্য কেউ অথবা তাদের অতিথি বাড়িটির বা আবাসিক কমপ্লেক্সের নিরাপত্তার জন্য ক্ষতিকর কিছু করেছেন তাহলে তিনি ভাড়া বাতিলের জন্য এন৭ নোটিশ ইস্যু করতে পারেন। ইচ্ছাকৃত ক্ষতিসাধন এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত।

অভিযোগের গুরুত্বের কারণে এন৫ এর মতো এন৭ বাতিলযোগ্য নয়। উদ্ভুত সমস্যা সমাধানে কোনো গ্রেস পিরিয়ডেরও সুযোগ নেই। এবং নোটিশ দেওয়ার পর দ্রুত শুনানির জন্য বাড়ির মালিক এলটিবিতে এল২ আবেদন করতে পারেন। এরপর শুনানির দিন ধায্য করে বাড়ির মালিককে অভিযোগ প্রমাণ করার সুযোগ দেওয়া হবে। আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ পাবেন ভাড়াটিয়াও।
এলটিবির শুনানিতে বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়া উভয়কেই তাদের যুক্তির পক্ষে প্রমাণ তুলে ধরতে হবে। শুনানিশেষে উচ্ছেদ আদেশ যদি দেওয়া হয় তাহলে ভাড়াটিয়া তা প্রতিপালন করতে পারেন। চাইলে এর বিরোধিতাও করতে পারেন।

এলটিবি উচ্ছেদ আদেশ যদি অনুমোদন করে তাহলে ভাড়টিয়া যদি এর বিরোধিতা করতে চান তাহলে তার সামনে দুটি পথ খোলা আছে। আদেশ পুনর্বিবেচনার অনুরোধ করতে পারেন অথবা এর বিরুদ্ধে আপিল করতে পারেন।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.