রবিবার, জানুয়ারী ৮, ২০২৩
-2.6 C
Toronto

Latest Posts

কানাডা-বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপ গঠিত

- Advertisement -
বাংলাদেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও শক্তিশালী ও প্রসারিত করার লক্ষে সম্প্রতি কানাডায় গঠিত হয়েছে ‘কানাডা-বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপ’

বাংলাদেশের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও শক্তিশালী ও প্রসারিত করার লক্ষে সম্প্রতি কানাডায় গঠিত হয়েছে ‘কানাডা-বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপ’। গ্রুপটি বাংলাদেশের সঙ্গে কানাডার সম্পর্কোন্নয়ন ছাড়াও দেশটিতে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে হওয়া বিভ্রান্তিকর ও মিথ্যা প্রচারণার মোকাবিলায় সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করছে বাংলাদেশ হাইকমিশন।

গত ১৫ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার কানাডার বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রত্যাশার কথা জানানো হয়।
হাইকমিশন বলছে, গ্রুপটি প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে বাংলাদেশ-কানাডা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে অসামান্য মাইলফলক অর্জিত হয়েছে। বিশেষ করে, দুই দেশ যখন কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর উৎযাপন করছে। এ গ্রুপ গঠনের মাধ্যমে কানাডার আইনপ্রণেতারা দুই দেশের মধ্যকার বহুমাত্রিক সম্পর্কসহ গত ১৫ বছরে বাংলাদেশের অর্জনের পাশাপাশি বাণিজ্য ও বিনিয়োগে কানাডিয়ান ব্যবসায়ীদের জন্য বিদ্যমান সুযোগ-সম্পর্কে আরও ভালোভাবে জানার সুযোগ পাবেন।

- Advertisement -

হাইকমিশনের ভাষ্য, গ্রুপটি কানাডা ও বাংলাদেশ উভয় দেশের সঙ্গে কাজ করবে। যাতে দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ককে প্রসার, সম্প্রসারণ এবং গভীরতর করা যায়। আশা করা হচ্ছে, গ্রুপটির মাধ্যমে কানাডার আইনপ্রণেতা এবং নীতিনির্ধারকরা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রাপ্য সমর্থন সম্পর্কে ভালোভাবে জানার সুযোগ পাবেন। এক্ষেত্রে দেশটি জলবায়ু এজেন্ডা, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন/পুনর্বাসন, নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন, যুবকদের দক্ষতা উন্নয়ন, সামাজিক, শিক্ষা এবং বৈজ্ঞানিক সহযোগিতাসহ সহিংস চরমপন্থা, সন্ত্রাসবাদ এবং মৌলবাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের অবস্থান সম্পর্কে জানতে পারবেন এবং সচেতন হবেন।

নবগঠিত এ গ্রুপটি কানাডা থেকে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিভ্রান্তিকর ও মিথ্যা প্রচারণার মোকাবিলায় সহায়ক হবে এবং কানাডায় বাংলাদেশের স্বল্পমেয়াদি এবং দীর্ঘমেয়াদী উভয় লক্ষ্য অর্জনে অনুঘটক হিসেবে কাজ করবে। এছাড়া এটি ধর্মনিরপেক্ষ ও গণতান্ত্রিক ইতিবাচক ভাবমূর্তি সমুন্নত রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে সাহায্য করবে বলেও মনে করছে হাইকমিশন।

কানাডার সেনেট ও হাউজ অব কমন্স-এর দশ সদস্যের এ গ্রুপে সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছেন পার্লামেন্টের সদস্য ব্র্যাড রেডেকপ। এছাড়াও সদস্যদের মধ্যে আরও রয়েছেন হাউস অব কমন্স-এর সদস্য চন্দ্র আর্য, সালমা জাহিদ, কেন হার্ডি, লুক দেসিলেতস, সেনেটর সালমা আতাউল্লাহজান ও মবিনা জাফর, কেভিন ওয়া, রবার্ট কিচেন ও সমীর জুবেরি।

কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার ড. খলিলুর রহমান সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। যেখানে গ্রুপটির সঙ্গে কীভাবে বাংলাদেশ-কানাডা দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে উন্নীত করতে করা যেতে পারে, তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।
হাইকমিশন জানায়, কানাডা-বাংলাদেশ পার্লামেন্টারি ফ্রেন্ডশিপ গ্রুপের সদস্যরা শিগগিরিই বাংলাদেশ সফর করবেন এবং বাংলাদেশের সংসদে তাদের প্রতিপক্ষের পাশাপাশি দেশের অন্যান্য নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

 

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.