শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
8.2 C
Toronto

Latest Posts

শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় কবি ইকবাল হাসানকে স্মরণ

- Advertisement -

প্রখ্যাত কবি ও কথাসাহিত্যিক ইকবাল হাসানকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় বৃহত্তর টরন্টোবাসী স্মরণ করেছেন। টরন্টোর বিদ্বজ্জনের সম্মিলিত উদ্যোগে আয়োজিত স্কারবরোর আলবার্ট ক্যাম্পবেল লাইব্রেরি মিলনায়তনে ইকবাল হাসানের স্মরণ অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। অনুষ্ঠানে বৃহত্তর টরন্টোবাসী তাদের শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা ব্যক্ত করেছেন আবেগময় কথায়, গানে ও স্বয়ং ইকবাল হাসানের কবিতার পঙক্তিতে। বেলা আড়াইটায় অনুষ্ঠিত এই স্মরণ আয়োজনে ইকবাল হাসানের বন্ধু, ভক্ত, স্বজন, শুভাকাঙ্ক্ষী ও পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

- Advertisement -

অনুষ্ঠানের শুরুতে শিল্পী নাহিদ কবির কাকলি – অশ্রু নদীর সূদুর পারে গানটি পরিবেশন করেন। কাকলি ইকবাল হাসানের সান্নিধ্যে কাটানো আনন্দময় সময় যাপনের কথা ব্যক্ত করেন। এরপর সূচনা বক্তব্য দেন সাপ্তাহিক বাংলামেইল পত্রিকার সম্পাদক ও এনআরবি টেলিভিশনের সিইও শহিদুল ইসলাম মিন্টু। অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণ করে ইকবাল হাসানের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা ব্যক্ত করেন – কবি আসাদ চৌধুরী, অন্টারিও প্রাদেশিক সংসদের মাননীয় সদস্য ডলি বেগম, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব আসমা আহমেদ, লেখক জসিম মল্লিক, সাংবাদিক সুমন রহমান, প্রচ্ছদশিল্পী ও সম্পাদক মাসুম রহমান, লেখক সালমা বাণী, মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সালাম, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল কাদের মিলু, কবি ড. বাদল ঘোষ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ কানাডার প্রেসিডেন্ট আমিন মিয়া, কবি সাহিদুল আলম টুকু, নাট্য নির্দেশক ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি আহমেদ হোসেন, সাংবাদিক সেলিনা সিদ্দিকী শুসু, কমিউনিটির নেতা ও কৃষিবিদ ড. সুশীতল চৌধুরী, ওন্টারিও বেঙ্গলি কালচারাল সোসাইটির নেত্রি ও সাংস্কৃতিক কর্মী ফারহানা পল্লব ও আশেক ওয়াহেদ চৌধুরী আসিফ। অনুষ্ঠানে স্মৃতিচারণের ফাঁকে ফাঁকে সঙ্গীত পরিবেশন করেন ফারহানা শান্তা ও মৈত্রেয়ী দেবী। কবি ইকবাল হাসানের কবিতা থেকে আবৃত্তি করেন বিশিষ্ট আবৃত্তি শিল্পী ও সংস্কৃতি কর্মী মেরী রাশেদীন ও কবি ও সংস্কৃতি কর্মী হোসনে আরা জেমী। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন কবি ইকবাল হাসানের স্ত্রী ও লেখক তসলিমা হাসান।

শুরুতেই তিনি ইকবাল হাসানের স্মরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। স্মরণ অনুষ্ঠান আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান। তসলিমা হাসান তার বক্তব্যে বলেন – ইকবাল হাসান তার স্বামী, একমাত্র সন্তানের পিতা, বন্ধু ও মেন্টর। তিনি বলেন – আপনারা হারিয়েছেন এক বিখ্যাত কবি ইকবাল হাসানকে। আমি হারিয়েছি আমার স্বামীকে, আমার বন্ধুকে। খুব কষ্ট হয় তাকে আর কোনদিন দেখতে পাবো না, এ কথা মনে হলে! তসলিমা হাসানের হৃদয় উৎসারিত স্মৃতিচারণে উপস্থিত সকলের চোখ সজল হয়ে ওঠে। তসলিমা হাসানের আবেগময় বক্তব্যের মধ্য দিয়েই কবি ইকবাল হাসানের স্মরণে আয়োজিত অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। অনুষ্ঠানটি গ্রন্থনা ও সঞ্চালনা করেন দেলওয়ার এলাহী।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.