মঙ্গলবার, জুলাই ৫, ২০২২
24.6 C
Toronto

Latest Posts

‘বিধিনিষেধ প্রত্যাহার আদিবাসীদের মধ্যে চতুর্থ ঢেউ ডেকে আনতে পারে’

- Advertisement -
ছবি/ ট্রাভেল ম্যানিটোবা

প্রদেশগুলোর কোভিড-১৯ সংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহারে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন আদিবাসী সেবা বিষয়ক মন্ত্রী মার্ক মিলার। মঙ্গলবার দ্য কানাডিয়ান প্রেসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, এ পদক্ষেপ আদিবাসী লোকজনের মধ্যে সংক্রমণের চতুর্থ ঢেউ ডেকে আনতে পারে। গত বছর দ্বিতীয় ঢেউ চলা অবস্থাতেই দেশের অনেক এলাকা স্বাভাবিক কার্যক্রম দ্রুত চালু করে দিয়েছিল এবং আদিবাসী কমিউনিটিগুলোর ওপর এর প্রভাব হয়েছিল মারাত্মক। আমার জন্য এটা খুবই উদ্বেগের।

সবচেয়ে বেশি আদিবাসী বাস করেন প্রেইরি অঞ্চলের প্রদেশগুলোতে। এগুলোর অধিকাংশই কোভিড-১৯ বিধিনিষেধ থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। এ সপ্তাহের শুরুর দিকে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরিধানের বিধান প্রত্যাহারের পাশাপাশি ব্যবসার ওপর অনেক বিধিনিষেধ শনিবার থেকে তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে ম্যানিটোবা। সাস্কেচুয়ান প্রদেশও মহামারির বিস্তার রোধে আরোপিত অধিকাংশ বিধিনিষেধ প্রত্যাহার করে নিয়েছে। আর আলবার্টা জনগণের ওপর থেকে জনস্বাস্থ্য সম্পর্কিত সব বিধিনিষেধ তুলে নেওয়ায় স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে প্রদেশটিকে।

- Advertisement -

মিলার বলেন, সঠিক স্বাস্থ্য নীতির সঙ্গে ভ্যাকসিন, সচেতনতা ও জনস্বাস্থ্য সংক্রান্ত বিধিবিধান অব্যাহত রাখার বিষয়টি জড়িত। কিন্তু অর্থনীতি ও প্রদেশগুলো যদি তড়িঘড়ি খুলে দেওয়া হয় তাহলে সেগুলো আর থাকে না।

আদিবাসী কমিউনিটির ওপর মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ ভয়াবাহ প্রভাব ফেলার বিষয়টি পরিস্কার হওয়ার পর গত ফলে ফার্স্ট নেশন নেতারা তাদের আশঙ্কার কথা প্রকাশ করেছিলেন। সংক্রমণ রোধে অনেক রিজার্ভের ওপর তখন লকডাউন ও বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল।

ম্যানিটোবায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী অ-আদিবাসী মানুষের গড় বয়স ৮০ বছর হলেও আমিবাসীদের মধ্যে এ বয়স ৬৩ বছর। এছাড়া আদিবাসীরা প্রদেশের মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ হওয়ার পরও কোভিড-১৯ মারা গেছেন মোট মৃত্যুবরণকারীর ২০ শতাংশ। কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন ৩৩ হাজারের বেশি আদিবাসী, যাদের বেশিরভাগই প্রেইরি এলাকার।

মিলার বলেন, গাদাগাদি করে বাস করা ও স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর আর্থ-সামাজিক অন্যান্য বিষয়ের কারণে আদিবাসীদের কোভিড-১৯ এ আক্রান্তের ঝুঁকি ৩-৫ গুণ বেশি। কিছু প্রদেশ আদিবাসীদের মধ্যে ভ্যাকসিন প্রয়োগকে অগ্রাধিকার দিয়েছে। আদিবাসী স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও নেতাদের চেষ্টায় তাদের মধ্যে ভ্যাকসিনেশনে ভালো অগ্রগতি হয়েছে। তারপরও লক্ষণীয় ঝুঁকি আছে।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.