শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪
-4.1 C
Toronto

Latest Posts

হাকিম খান প্রেজেন্টস জমজমাট ‘নিউ ইয়ারস ইভ সেলিব্রেশন’

- Advertisement -

গত ৩১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হলো এ বছরের জমজমাট ‘হাকিম খান প্রেজেন্টস নিউ ইয়ারস ইভ সেলিব্রেশন’। হলভর্তি দর্শকের উপস্থিতিতে আনন্দদায়ক ও নানাবিধ চমকে পূর্ন আয়োজনটির নেপথ্যে ছিলেন শহরের পরিচিত মুখ প্রিয়জন হাকিম খান। বেশ কয়েক সপ্তাহ আগেই ফুরিয়ে যায় টিকেট এবং শহরে ব্যাপক আলোড়ন ও ইতিবাচক গুন্জনের সৃষ্টি করে আয়োজনটি।

- Advertisement -

বছরের শেষ দিনটিতে সন্ধ্যা ৭.০০ টায় খুলে দেয়া হয় সেলিব্রেশন ব্যাংকোয়েট হলের দরজা, আসতে শুরু করেন সম্মানিত অতিথিবৃন্দ। তাদের আন্তরিক অভ্যর্থনা দিয়ে স্বাগত জানান আয়োজক হাকিম খান এবং তার সহধর্মিনী ফারাহ খান। অনুষ্ঠান শুরু হয় আন্তর্জাতিক ক্রীড়া ধারাভষ্যকার ও এনআরবি টিভির জনপ্রিয় মুখ মাসুদ করিমের ধারাভাষ্য দিয়ে । এলইডি স্ক্রিনে ভেসে উঠে খেলার মাঠ, তিনি ডেকে নেন প্রধান আয়োজক হাকিম খানকে। হাকিম খান সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে আমন্ত্রণ জানান দুজন উপস্থাপক ববি রব্বানী ও এনআরবি টিভির আরেক জনপ্রিয় মুখ অজন্তা চৌধুরীকে। তাদের প্রাণবন্ত ও সাবলীল উপস্থাপনায় জমতে থাকে আয়োজন। শুরুতেই আনুশকা সাহার স্যাক্সোফোনের মূর্ছনায় হলিডে আমেজের সাথে প্রারম্ভিক খাবার উপভোগ করতে থাকেন সবাই। স্যাক্সোফোনের ঘোর কাটতে না কাটতেই গানের সুরে সবাইকে মুগ্ধ করেন নিউ ইয়র্ক -এর জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী মিতুল হক এবং মাসুদ আহমেদ। এর পরে টরন্টোর জনপ্রিয় ম্যাজিশিয়ান স্পেন্সার স্কারের যাদুতে কিছুটা বিস্ময়কর সময় কেটে যায়, অংশ নেন দর্শকবৃন্দ। সুপরিচিত “হিপ ডোন্ট লাই “-এর মনোমুগ্ধকর নৃত্যের ছন্দে মঞ্চ যখন আলোকিত ঠিক সেই সময় বাংলা গান “কমলায় নৃত্য করে “-র “সাথে ভিনদেশি নৃত্যশিল্পীদের পরিবেশনা বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়।

নৈশভোজের পর্বটি শেষ হতেই রাফেল ড্র-র চমক নিয়ে আসেন শাড়ী নিয়ে শেখ নাহার (নন্দিনী বুটিক ), ফরিদা পপি আচার সহ নানারকম উপঢৌকন (পপি’স আর্ট অফ কিচেন ) । আর ফারাহ খান (রিয়েল্টর) দিয়েছেন প্রথম পুরস্কার একটি ল্যাপটপ । এই পর্বটি নিয়ে চলে উপস্থিত অতিথিবৃন্দের মাঝে বেশ উত্তেজনা। রাফেল ড্র-তে সাহায্য করতে আসে যাহরা চৌধুরী ও নির্জলা প্রিয়দর্শিনী। ঘড়ির কাঁটা যখন ধীরে ধীরে নতুন বছরের দিকে যেতে শুরু করে তখন টরন্টোর জনপ্রিয় এ্যাক্রোব্যাট বেক্স মোশন উপস্থিত দর্শকদের মুগ্ধ করে তার পরিবেশনার মাধ্যমে।

১২ টা বাজার ঠিক ৫ মিনিট আগেই ডিজে রিকেল প্রস্তুত হয়ে যান সকলকে নিয়ে। মহা উৎসাহ ও উদ্দীপনায় এই আয়োজনে টরন্টোর বাংলা কমিউনিটির পরিচিত প্রিয়জনেরা একসাথে নতুন বছরকে স্বাগত জানান। একটানা ঘন্টা খানিক ডান্স ফ্লোর চাঙ্গা হয়ে থাকে বাংলা ইংলিশ ও হিন্দি গানের তালে, ডিজে রিকেলের গান নির্বাচন প্রশংসিত হয়। আয়োজনের শেষে ছিল বাংলাদেশী রসগোল্লার সাথে মিড্ নাইট স্নাক্স। মধ্য রাত অবধি চলতে থাকে আনন্দ উল্লাস আর প্রশংসার জোয়ারে ভাসতে থাকে আয়োজনটি। ডানফোর্থ সাউন্ড এর অনবদ্য শব্দ নিয়ন্ত্রণ, ফটোগ্রাফার কামরান করিমের ক্যামেরার জাদুময় ক্লিক কিংবা রাশেদ শাওন-এর পরিছন্ন নান্দনিক গ্রাফিক্স নিঃসন্দেহে একটি বাড়তি মাত্রা যোগ করেছে।

শহর জুড়ে এখনো যেন আনন্দময় রেশ কাটছেনা বছরের অন্যতম সেরা আয়োজনটির। আয়োজক হাকিম খানের সাথে কথা বলে জানা যায় তিনি ভবিষ্যতে এমন আরো আয়োজন নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছেন। সম্মানিত স্পনসরদের তিনি বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা জানান।

তিনি আরো বলেন, তাদের সহযোগিতা ছাড়া এই আয়োজনটি সম্ভব হতো না। এই আয়োজনে রয়েল স্পনসর হিসাবে ছিলেন শামীম আরা (ব্যারিস্টার ), সাব্বির খান (ড্রিম ভ্যালি রিয়ালটি ), ওমর হাসান আল জাহিদ (ব্যারিস্টার )এবং ডায়মন্ড চৌধুরী (ম্যানেজিং ডিরেক্টর, DCDL এবং ডিরেক্টর হ্যাভেন্স গ্রুপ ) এবং প্লাটিনাম স্পনসর হিসাবে ছিলেন আরিফ ইমতিয়াজ (ব্যারিস্টার ), ফারাহ খান (রিয়েল স্টেট ব্রোকার ), আরিফ হোসেন (ব্যারিস্টার ,ক্রিমিনাল ও ইমিগ্রেশন), হিশাম চিশতি (রিয়েল্টর), সাবরিনা সুলতানা (রিয়েল্টর), তাবাস্সুম ইমতিয়াজ (মর্টগেজ এজেন্ট ), জান্নাতুল ফেরদৌস (রিয়েল্টর), রিনি ঝিনি (রিয়েল্টর), ফারহানা খান (শেহনাই এন্টারটেইনমেন্ট ), রবিন ইসলাম (রিয়েল এস্টেট ব্রোকার ), ফারজানা শারমিন (রিয়েল্টর), রফিক আলম (রিয়েল্টর), শান দে (হোম বিউল্ডার্স ), হৈচৈ রেস্টুরেন্ট , গৌতম পাল (রিয়েল এস্টেট ব্রোকার)এবং উন্দাল রেস্টুরেন্ট । আয়োজক হাকিম খান ও ফারাহ খান ধন্যবাদ জানান উপস্থিত অতিথিদের এবং বিশেষভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয় নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়া ব্যাক্তিবর্গকে, যাদের মাঝে স্বপ্না দাস, বাবলু চৌধুরী, সঞ্জয় চাকী, ইশতিয়াক শরীফ এবং তানভীর (উন্দাল রেস্টুরেন্ট )অন্যতম।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.