বুধবার, ডিসেম্বর ৮, ২০২১
-6 C
Toronto

Latest Posts

নির্বাচন দিতে ট্রুডোর অনুরোধ রাখতে পারেন গভর্নর জেনারেল

- Advertisement -
এনডিপি নেতা জাগমিত সিং

পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়ার ব্যাপারে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধ রক্ষা করা গভর্নর জেনারেলের দীর্ঘদিনের রেওয়াজ। এর ফলে গভর্নর জেনারেল মেরি সিমন নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর অনুরোধ রাখতে পারেন বলে সংবিধান বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।

তবে ভোটারদের আবার ভোটকেন্দ্রে যেতে হয় জাস্টিন ট্রুডোর এমন কোনো অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করতে গভর্নরের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন এনডিপি নেতা জাগমিত সিং। তিনি বলেন, নির্বাচনী আইনেই বলা আছে, একটি নির্বাচনের চার বছর পর অক্টোবরের তৃতীয় সোমবার পরবর্তী সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

- Advertisement -

নবনিযুক্ত গভর্নর জেনারেলকে লেখা এক চিঠিতে এনডিপি নেতা বলেছেন, তবে সরকার যদি সংসদে আস্থা হারায় সেক্ষেত্রে আগাম নির্বাচনের সুযোগ রয়েছে। কিন্তু ট্রুডো সরকার প্রতিটি আস্থা ভোটেই উৎরে গেছে।
অটোয়া ইউনিভার্সিটির আইনের অধ্যাপক ইরোল মেন্ডেস বলেন, রানীর প্রতিনিধি হিসেবে পার্লামেন্ট ভেঙে দেওয়ার ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডোর অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করার ক্ষমতা গভর্নর জেনারেলের রয়েছে। যদিও বহু বছর ধরে ক্ষমতাটির প্রয়োগ নেই। যুক্তরাজ্যের কাছ থেকে কানাডা স্বাধীন দেশ হওয়াই এর কারণ। গভর্নর জেনারেল এ ব্যাপারে এনডিপি নেতার অনুরোধ রাখতে পারবেন বলে আমার মনে হয় না। এ ধরনের কোনো সম্ভাবনাই নেই।

প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো ও এনডিপি নেতা জাগমিত সিংসহ রাজনৈতিক দলগুলোর কেন্দ্রীয় নেতারা সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে যেভাবে নির্বাচনী প্রচারণার আদলে সারাদেশ ভ্রমণ করছেন তা থেকেই আগাম নির্বাচনের ধারণাটা স্পষ্ট। গত বুধবারও এক ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গুরুত্বপূর্ণ আইনগুলো বিলম্বিত ও বাতিল করতে কনজার্ভেটিক এমপিরা পদ্ধতিগত যে কৌশল নিয়েছেন তাতে করে পার্লামেন্ট অকার্যকর হয়ে পড়েছে। এসব আইন পাশে এনডিপিও সেভাবে লিবারেল সরকারের পাশে দাঁড়ায়নি।

নির্বাচনের ব্যাপারে গভর্নর জেনারেল তার প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধ রাখবেন বলে তিনি বিশ^াস করেন কিনা এবং অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করলে কানাডার স্বাধীনতা দুর্বল মনে হবে কিনা সে সম্পর্কিত প্রশ্নের কোনো উত্তর দেননি জাস্টিন ট্রুডো। তবে মেন্ডেস বলেন, সংবিধানের অধীনেই গভর্নর জেনারেলের প্রতি আগাম নির্বাচনের অনুরোধ করার অধিকার প্রধানমন্ত্রীর রয়েছে। হারপার সরকার যে স্থায়ী নির্বাচনী আইন বলবৎ করেছে তাতে এ সংক্রান্ত কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি।

মেন্ডেসের মতে, কানাডার ইতিহাসে সর্বশেষ আগাম নির্বাচনের অনুরোধ গভর্নর জেনারেল প্রত্যাখ্যান করেছিলেন ১৯২৬ সালে। পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়ে নতুন করে নির্বাচন দেওয়ার ব্যাপারে সেই সময়কার প্রধানমন্ত্রী উইলিয়াম লিন ম্যাকেঞ্জি কিংয়ের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করেছিলেন গভর্নর জেনারেল লর্ড জুলিয়ান। তা নিয়ে সাংবিধানিক সংকটও তৈরি হয়েছিল।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.