রবিবার, নভেম্বর ২৭, ২০২২
5.1 C
Toronto

Latest Posts

গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো শক্তিশালী করার ওপর জোর

- Advertisement -
জরুরি প্রস্তুতি বিষয়ক মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার

গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামোর ক্ষেত্রে ভবিষ্যতের ঝড়ের বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়ার ওপর জোর দিয়েছেন জরুরি প্রস্তুতি বিষয়ক মন্ত্রী বিল ব্লেয়ার। ভয়াবহ ঝড়বৃষ্টি ও ভুমিধসের পর ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার পুনর্গঠন কাজের পরিপ্রেক্ষিতে এ মন্তব্য করেন তিনি।

বিল ব্লেয়ার বলেন, ব্রিটিশ কলাম্বিয়ায় এ মাসের গোড়ার দিকের দুর্যোগে সৃষ্ট ক্ষয়ক্ষতি মেরামতে ঠিক কি পরিমাণ ব্যয় হবে তা বলার সময় এখনও আসেনি।

- Advertisement -

ঝড়ের ফলে ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার দক্ষিণের কিছু কমিউনিটিতে প্রায় ৩০০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। দুই দিনেরও কম সময়ের এই বৃষ্টিতেই প্রধান প্রধান মহাসড় ও রেললাইন ধুয়ে যায় এবং ব্যাপক ভুমিধ্বস হয়। এতে অন্তত চারজন নিহত হন। ক্ষতিগ্রস্ত কিছু অবকাঠামো মেরামতে এক বছরেরও বেশি সময় লেগে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার কর্মকর্তারা।

ব্লেয়ার বলেন, পুনর্গঠনের কাজ চলছে এবং কানাডিয়ানদের এটা উপলব্ধি করা জরুরি যে, ঝড়ে গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো কত দ্রুত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে এবং আগের চেয়ে কত ভালোভাবে এগুলো নির্মাণ করা দরকার। ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার সাম্প্রতিক ঝড় ও বন্যা থেকে একটা বিষয় আমার কাছে পরিস্কার এবং তা হলো, অবকাঠামোগুলো জলবায়ুসহিষ্ণু করে নির্মাণে কানাডিয়ানদের সামনে এখনও যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর তিনি বলেন, দুর্যোগে গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো বাঁধের মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে এবং নতুন আবহাওয়া পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়েই তা পুনর্নির্মাণ করতে হবে। কোভিড-১৯ মহামারির পরিপ্রেক্ষিতে সবুজ দেশ গঠনের যে আলোচনা সেখানে অধিক সহিষ্ণু দেশ গঠনের বিষয়টিতে মনোযোগ থাকা প্রয়োজন। অর্থাৎ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব ও জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় আমাদেরকে সঠিক বিনিয়োগ নিশ্চিত করতে হবে।

দ্য কানাডিয়ান প্রেস জানায়, ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার বন্যা ও জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে জরুরি বিতর্কের প্রস্তাব দেওয়ার পরিকল্পনা করছে কনজার্ভেটিভ পার্টি ও এনডিপি। এতে সমর্থন দিচ্ছে লিবারেল পার্টিও। এনডিপি নেতা জাগমিত সিং বলেন, বিতর্কে অভিযোজনের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা প্রয়োজন।

বিপদের ঝুঁকির কথা জানিয়ে সেলফোনে বার্তা দেওয়ার যে পদ্ধতি সেই জাতীয় অ্যালার্ট রেডি সিস্টেম ব্যবহার না করার জন্য ব্রিটিশ কলাম্বিয়া সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা চলছে। বিষয়টি উল্লেখ না করে ব্লেয়ার বলেন, ঝুঁকির বিষয় জানিয়ে জনগণের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা থাকা উচিত।

২০১৮ সাল থেকেই ব্যবস্থাটি চালু রয়েছে। তবে একমাত্র প্রদেশ হিসেবে ব্রিটিশ কলাম্বিয়া এখন পর্যন্ত এর আওতায় কোনো সতর্ক বার্তা দেয়নি। এমনকি গত গ্রীষ্মে তাপদাহে ব্রিটিশ কলাম্বিয়ার লাইটন শহর যখন পুড়তে থাকে এবং শখানেক লোক মানরা যায় তখনও নয়। যদিও অন্টারিও ব্যবস্থাটির আওতায় ২০২ এবং সাস্কেচুয়ান ১০০ এর বেশি সতর্ক বার্তা দিয়েছে।

বিল ব্লেয়ার বলেন, আবহাওজনিত কারণে যেসব নাগরিকের ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে প্রথমেই তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করাটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বলে আমি মমনে করি, যাতে করে তারা সময়মতো পদক্ষেপ নিতে পারেন।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.