মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ৭, ২০২১
-2.5 C
Toronto

Latest Posts

মোহক ইনস্টিটিউটে অনুসন্ধান শুরু

- Advertisement -
ফাইল ছবি

অচিহ্নিত কবরের খোঁজে সাবেক আবাসিক স্কুল মোহক ইনস্টিউটে অনুসন্ধান বুধবার শুরু করেছে অন্টারিওর একটি ফার্স্ট নেশন। আবাসিক স্কুল থেকে বেঁচে ফেরা কেউ কেউ কাজটিকে কঠিন বললেও প্রয়োজনীয় বলে মনে করছেন।
অন্টারিওর ব্র্যান্টফোর্ডের এ অনুসন্ধান মোহক ইনস্টিটিউটের আশপাশে ২০০ হেক্টর এলাকাজুড়ে পরিচালিত হবে। এটির অবস্থান সিক্স নেশন্স অব দ্য গ্র্যান্ড রিভার অঞ্চলের কাছাকাছি। ফার্স্ট নেশনটির প্রধান মার্ক বি হিল বলেন, তার কমিউনিটি সাবেক আবাসিক স্কুলটির প্রাঙ্গণে তদন্তের জন্য তৈরি। অনেকের কাছেই দিনটি দীর্ঘ প্রতীক্ষিত। সেই সঙ্গে এই ইনস্টিটিউটে আমাদের লোকদের সঙ্গে যে নিষ্ঠুরতা হয়েছিল এটি তাও স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে। আমাদের কমিউনিটি সদস্যরা অনুসন্ধানে অচিহ্নিত কবর পাওয়ার ব্যাপারে তৈরি আছে। এ ধরনের তল্লাশির সুযোগ ও ব্যাপকতা অনন্য। এটা খুবই অনাবিস্কৃত অঞ্চল। সামনের মাসগুলো আমাদের জন্য কঠিন হবে। কিন্তু কাজটি আমাদের কমিউনিটিকে ভয়াবহতা থেকে বেরিয়ে আসার একটা সুযোগ করে দেবে।
স্কুলের চারদিকে তল্লাশির জন্য ভূগর্ভস্থ দুটি রাডার মেশিন কাজ করছে। ফার্স্ট নেশসেনর সদস্য ও এর পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের রাডার মেশিন ব্যবহারের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে এবং তারা একযোগে তল্লাশি কাজ চালাবেন। সাবেক আবাসিক স্কুল থেকে বেঁচে ফেরা কয়েকজন প্রথম দিনের অনুসন্ধানের সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন।
সিক্স নেশন্স অব দ্য গ্র্যান্ড রিভারের জন আর এলিয়ট বলেন, ১৯৪৭ থেকে ১৯৫২ সাল পর্যন্ত তিনি স্কুলটিতে ছিলেন। ৮৪ বছর বয়সী এ আদিবাসী বলেন, সে সময় একাধিকবার তিনি স্কুল থেকে পালিয়েছিলেন। কিন্তু বারবারই তাকে জোর করে সেখানে পাঠানো হয়েছে।
তিনি বলেন, আমি অনেকবার, ২৫ থেকে ৩০ বার পালিয়েছি। গ্রেড থ্রিতে পড়ার সময় আমার বয়স ছিল ১০ বছর এবং এর পাঁচ বছর পর আমি যখন স্কুল ছাড়ি তখন আমার বয়স হয়েছিল ১৫ বছর। তল্লাশি শুরু হতে দীর্ঘ সময় লাগলো। কিন্তু শেষ পর্যন্ত এটা শুরু হলো এবং এটা চমৎকার।
সিক্স নেশন্স অব দ্য গ্র্যান্ড রিভারের সারভাইভর’স সেক্রেটারিয়েটের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রথম পর্যায়ের তল্লাশি চলবে স্কুল ভবন যে ভূমিতে ছিল সে জায়গাকে মাথায় রেখে।
কিম্বারলি আর মারে বলেন, মোহক ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে ঠিক কি ঘটেছিল স্কুল থেকে বেঁচে ফেরা আদিবাসীরা তা সঠিকভাবে জানেন। আধুনিক প্রযুক্তি ও যন্ত্র সত্য উদ্ঘাটনে সহায়ক হতে পারে। কিন্তু বেঁচে ফেরা আদিবাসীদের জ্ঞানের জায়গা নিতে পারবে না এগুলো। সে সময় যারা স্কুলটিতে ছিলেন এবং এখন আমাদের সঙ্গে আছেন তারাই আমাদের সাক্ষী। কয়েক দশক আগে জায়গাটি কেমন ছিল তারাই ভালো বলতে পারবেন।

 

- Advertisement -

 

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.