বুধবার, ডিসেম্বর ৮, ২০২১
-5.2 C
Toronto

Latest Posts

ই-সিগারেটে নিকোটিনের মাত্রা কমছে

- Advertisement -

ভ্যাপিং প্রোডাক্ট বা ই-সিগারেটে নিকোটিনের মাত্রা কমানোর পরিকল্পনা করছে কানাডার কেন্দ্রীয় সরকার। ই-সিগারেটের প্রতি তরুণদের আগ্রহ কমাতেই এ উদ্যোগ।

- Advertisement -

হেলথ কানাডার পক্ষ থেকে শুক্রবার বলা হয়েছে, কানাডায় উৎপাদিত বা আমদানিকৃত ই-সিগারেটে নিকোটিনের মাত্রা প্রতি মিলিলিটারে ২০ মিলিগ্রামে নামিয়ে আনার প্রস্তাব করেছে তারা। বর্তমানে রপ্তানির জন্য তৈরি ই-সিগারেটে নিকোটিনের মাত্রা প্রতি মিলিলিটারে ৬৬ মিলিগ্রাম।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী কোনো ই-সিগারেটের প্যাকেটে নিকোটিনের মাত্রা প্রতি মিলিলিটারে ২০ মিলিগ্রামের বেশি হলে তা বিক্রির অনুমতি পাবে না।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্যাটি হাইডু এক বিবৃতিতে বলেছেন, ই-সিগারেটের ক্ষতি থেকে কানাডিয়ানদের রক্ষা করতে আমাদের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। ই-সিগারেট সম্পর্কিত নতুন নিয়ম তরুণদের এর প্রতি আগ্রহ কমাতে সহায়ক হবে।

প্রস্তাবিত নতুন নিয়ম সম্পর্কে জনমত যাচাইয়ের লক্ষ্যে শনিবার থেকে ৭৫ দিনব্যাপী কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছে কানাডার স্বাস্থ্য বিভাগ। আগামী ৪ মার্চ কর্মসূচি শেষ হবে।

ই-সিগারেটে যাতে ফ্লেভার যুক্ত করা না হয় সেজন্যও কঠোর বিধিনিষেধ আরোপের কথা ভাবছে সরকার। এর আওতায় ই-সিগারেট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানকে তাদের বিক্রয়, উপাদান, গবেষণা ও উৎপাদন-সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য উল্লেখ করতে হবে।

ই-সিগারেটের বিষয়ে সরকারের এ বিধিনিষেধকে সাধুবাদ জানিয়েছে কানাডিয়ান ক্যান্সার সোসাইটি। সংস্থা্িট বলেছে, ব্রিটিশ কলাম্বিয়া, নোভা স্কটিয়া ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন এরই মধ্যে ই-সিগারেটে নিকোটিনের মাত্রা প্রতি মিলিলিটারে ২০ মিলিগ্রামে নামিয়ে এনেছে। নিকোটিনের মাত্রা কমিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছে কুইবেকও। যদিও কানাডায় বিক্রি হওয়া অনেক ই-সিগারেটে এর তিনগুণ নিকোটিন রয়েছে।

কানাডিয়ান ক্যান্সার সোসাইটির জ্যেষ্ঠ নীতি বিশ্লেষক রব কানিংহাম শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেন, কানাডায় উচ্চ হারে তরুণদের মধ্যে ই-সিগারেট সেবন সত্যিই উদ্বেগের এবং এ বিবেচনায় নতুন নিয়ম যথেষ্ট যৌক্তিক। উচ্চ মাত্রায় নিকোটিন নতুন প্রজন্মের তরুণদের ই-সিগারেটের মাধ্যমে নিকোটিনের প্রতি আসক্তি তৈরি করছে।

একই রকম প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে কানাডার হার্ট অ্যান্ড স্ট্রোক ফাউন্ডেশন। ই-সিগারেটে ফ্লেভার বন্ধের পাশাপাশি কর বাড়ানোর প্রস্তাবও দিয়েছে সংস্থাটি।

ত্েব এর বিপরীত মত দিয়েছে কানাডিয়ান ভ্যাপিং ইন্ডাস্ট্রি ট্রেড অ্যাসোসিয়েশন। তাদের যুক্তি, রিকোটিনের মাত্রা কমিয়ে আনলে পুর্ণবয়স্ক ধুমপায়ীরা প্রথাগত সিগারেট ও তামাক পণ্য ছেড়ে ই-সিগারেটের দিকে যেতে নিরুৎসাহিত হবেন। যদিও ই-সিগারেটের চেয়ে এগুলো অনেক বেশি ক্ষতিকর।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.