শনিবার, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
8.7 C
Toronto

Latest Posts

‘কুইবেকের বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোর শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরুর প্রস্তুতি নেওয়া উচিত’

- Advertisement -
ছবি/ ইভানো দিমার, রেডিও কানাডার সৌজন্যে

কুইবেকের বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোর শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরুর প্রস্তুতি নেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন প্রদেশের উচ্চশিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী ড্যানিয়েলে ম্যাককান। শারীরিক দূরত্ব বজায় ছাড়াই এই ফলে যাতে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু করা যায় সে লক্ষ্য বিশ^বিদ্যালয় ও জুনিয়র কলেজ কর্তৃপক্ষের প্রতি প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সোমবার সাংবাদিকদের ম্যাককান বলেন, কুইবেকের ১৬ থেকে ২৯ বছর বয়সী ৭৫ শতাংশ নাগরিককে উভয় ডোজের ভ্যাকসিন দেওয়া গেলে এবং সংক্রমণ পরিস্থিতি স্থিতিশীল থাকলেই কেবল নতুন এ নির্দেশনা বাস্তবায়ন করা হবে। আমাদের তরুণ ও সমাজের সামনে এটা অদ্ভুত একটা চ্যালেঞ্জ। তরুণরা ভ্যাকসিনের প্রতি কতটা আগ্রহী হয় তার উপরই বিশ^বিদ্যালয় ও কলেজগুলো পুরোপুরি খুলে দেওয়া নির্ভর করছে।

- Advertisement -

কুইবেকের জনস্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ডা. হোরাসিও আরুদা বলেন, ভ্যাকসিন নেওয়ার হার যদি ৭৫ শতাংশেল কম হয় তাহলে স্কুলে অনেক বেশি তরুণ কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে থাকবে। কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত মৃত্যুর ঝুঁকি বয়স্কদের তুলনায় তরুণদের মধ্যে কম থাকলেও দীর্ঘমেয়াদে ফুসফুসের সমস্যা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা কিন্তু রয়েছে।

উচ্চশিক্ষা মন্ত্রী বলেন, মাস্ক পরিধান করার মতো কিছু স্বাস্থ্যবিধি ফলেও বলবৎ থাকবে। প্রদেশের অন্যান্য অঞ্চলে যে ধরনের বিধিনিষেধ আছে কলেজ ও বিশ^বিদ্যালয়ে শিক্ষাবহির্ভূত কর্মকা- ও ক্রীড়া অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রেও তা বহাল থাকবে। ভ্যাকসিনেশনের লক্ষ্য অর্জিত না হলে অথবা সংক্রমণ পরিস্থিতি বদলে গেলে বিকল্প পরিকল্পনা তৈরি করতে বলা হয়েছে স্কুলগুলোকেও। তবে ফলের মধ্যেই পোস্ট-সেকেন্ডারি পর্যায়ে যতটা সম্ভব শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে এবং শিক্ষার্থীদেরকে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শহরে বসবাসের স্থান খুঁজে নিতে বলা হয়েছে।

ম্যাককিন বলেন, প্রাদেশিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে সোমবারই তিনি বৈঠক করেছেন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পুরোপুরি খুলে দেওয়ার ব্যাপারে তারা প্রস্তুত।

এদিকে সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ের পর প্রথমবারের মতো দৈনিক সংক্রমণ ৩০০ এর নিচে নেমে আসার পর বিধিনিষেধ শিথিল করেছে কুইবেক। স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের তথ্য অনুযায়ী, এদিন নতুন করে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হন ২৭৬ জন এবং মারা গেছেন একজন। হাসপাতালে ভর্তি রোগীও ৩৬২ থেকে ২ জনে নেমে এসেছে। নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ভর্তি রোগীর সংখ্যা নেমে এসেছে একজনে। সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে যেখানে সংখ্যাটি ছিল ৮৯।

কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী, রোববার প্রদেশে ৭৭ হাজার ৪৯৫ ডোজ ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হয়েছে। এ নিয়ে প্রদেশটিতে অন্তত এক ডোজ ভ্যাকসিন পেয়েছেন মোট ৫৫ লাখ ৮৩ হাজার ৭৫ জন, যা কুইবেকের মোট জনসংখ্যার ৬০ দশমিক ৮ শতাংশ। খবর: দ্য কানাডিয়ান প্রেস।

- Advertisement -

Latest Posts

Don't Miss

Stay in touch

To be updated with all the latest news, offers and special announcements.