বুধবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৮:০১ am

অতি ধনীদের একজনও দোষী হননি

অতি ধনীদের একজনও দোষী হননি

ছবি/গ্লোবাল নিউজের সৌজন্যে

কানাডা রেভিনিউ এজেন্সি (সিআরএ) অতি ধনীদের কর ফাঁকি ঠেকানোর চেষ্টা করলেও তাদের একজনকেও দোষী সাব্যস্ত করা যায়নি। সংস্থাটির সাম্প্রতিক উপাত্তে এমনটাই উঠে এসেছে।

সংসদে এনডিপি এমপি ম্যাথিউ গ্রিনের এ সংক্রান্ত এক প্রশ্নের উত্তরে সিআরএ জানায়, ৫ কোটি ডলারের বেশি আয় এমন ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ২০১৫ সাল থেকে ৪৪টি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে মাত্র দুটি মামলা ফেডারেল প্রসিকিউটর পর্যন্ত গেছে। তবে একটারও অভিযোগ গঠন করা হয়নি।

গ্রিন বলেন, ফেডারেল কর্তৃপক্ষ বড় কর ফাঁকি এড়িয়ে গেলেও ছোট ব্যবসায়ীদের পিছু ছাড়ছে না, টু-টায়ারড সিস্টেমের অধীনে যারা কর দিচ্ছেন না। অতি ধনীদের জন্য যেমন ট্যাক্স কোড আছে, একইভাবে বাকিদের জন্যও আছে। আমাদের কর ব্যবস্থায় যে গলদ অতি ধনীরা তার সুযোগ নিচ্ছেন এবং লিবারেল সরকার তাদেরকে সুযোগটি দিয়েই যাচ্ছে।

জাতীয় রাজস্ব বিষয়ক মন্ত্রী ডায়ানে লেবোথিলিয়ের বলেন, অতি ধনীরা বিশেষ সুবিধা পাবেন না। যারা কর ফাঁকি দেন তাদের প্রতি আমার কোনো সম্মান নেই।

সিআরএ ক্রিমিনাল ইনভেস্টিগেশন্স ডিরেক্টোরেটের সাবেক মহাপরিচালক ডেনিস মেউনিয়ার বলেন, ফৌজদারি অভিযোগপত্র না পড়ার বিষয়টি বিস্ময়কর। আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে ব্যয়সাপেক্ষ ও কষ্টসাধ্য মামলা চালিয়ে যাওয়ার মতো সম্পদের অভাব রয়েছে কর্তৃপক্ষের। তাই চটজলদি অফৌজদারি জরিমানা আরোপের পথে হাটতে পারে তারা। 

উল্লেখ্য, ২০২৫ সালের মধ্যে নতুন বেনিফিসিয়াল ওনারশিপ রেজিস্ট্রির জন্য শিল্প বিভাগের জন্য আগামী দুই বছরে ২১ লাখ ডলার বরাদ্দ রাখা হয়েছে গত এপ্রিলে ঘোষিত লিবারেল সরকারের বাজেটে। পাশাপাশি ফৌজদারি অপরাধ তদন্ত কর্মসূচির উন্নয়নে চলতি বছর থেকে শুরু করে আগামী পাঁচ বছরের জন্য ৬০ কোটি ৬০ লাখ ডলার বরাদ্দের প্রতিশ্রুতিও দিয়েছে ফেডারেল সরকার। অতি ধনীদের অবৈধ কর ফাঁকি বন্ধের কর্মসূচিতেও এ অর্থ ব্যয় হবে বলে জানান লেবোথিলিয়ের। সূত্র দ্য কানাডিয়ান প্রেস। 

 

 

 

Comments