শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ৫:৫০ am

দৈনিক সংক্রমণ ৬ হাজারে পৌঁছাতে পারে

দৈনিক সংক্রমণ ৬ হাজারে পৌঁছাতে পারে

ফাইল ছবি

কোভিড-১৯ মহামারির তৃতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণে আনতে স্টে-অ্যাট-হোম আদেশকে সমর্থন জানিয়েছেন অন্টারিওর সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিল। তাদের ধারণা, এপ্রিলের মাঝামাঝি নাগাদ প্রদেশে দৈনিক সংক্রমণ ৬ হাজারে পৌঁছাতে পারে বলে মনে করছে তারা।

আন্তঃপ্রদেশ যাতায়াত সীমিত করার মাধ্যমে সংক্রমণ কমিয়ে রাখা সম্ভব বলে মত দিয়েছে সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিল। সংক্রমণ হ্রাসে গত জানুয়ারিতেও এ ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল। ফেব্রুয়ারি মাসের মাঝামাঝি নাগাদ এ ব্যবস্থা বলবৎ ছিল।

সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিলের কো-চেয়ার ড. অ্যাডেলস্টেইন ব্রাউন বলেন, স্বল্প মেয়াদে সংক্রমণ কেমন হবে তার পুরোটাই নির্ভর করছে সরকারের জনস্বাস্থ্য বিধিবিধান বাস্তবায়ন ও ভ্যাকসিনেশন হারের ওপর।

যাতায়াত বিশেষ করে অঞ্চলগুলোর মধ্যে যাতায়াত সীমিত করা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের চাবিকাঠি বলে মনে করেন অন্টারিও জনস্বাস্থ্য বিভাগের চিফ মেডিকেল অফিসার ডা. ডেভিড উইলিয়ামস। তিনি বলেন, উচ্চ হারে গোষ্ঠী সংক্রমণ হচ্ছে এমন এলাকা থেকে কম সংক্রমিত এলাকায় যখন লোকজন যাচ্ছে তখন তারা অধিক সংক্রামক ভ্যারিয়েন্ট ছড়িয়ে দেওয়ার ঝুঁকি তৈরি করছে। এ ধরনের চলাচল কীভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায় সেটাই আমাদের বড় উদ্বেগ।

সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা কমিউনিটির মধ্যেও ভ্যাকসিন এখনও পৌঁছানো যায়নি, মহামারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কার্যকর কৌলশকে যা বাধাগ্রস্ত করছে বলে মনে করেন ডেভিড উইলিয়ামস। তিনি বলেন, অন্টারিওর ৭৫ থেকে ৭৯ বছর বয়সী ৪০ শতাংশ এবং ৭০ থেকে ৭৪ বছর বয়সী ৭২ শতাংশ নাগরিককে এখনও প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন দেওয়া সম্ভব হয়নি। আমরা প্রথম ডোজের ভ্যাকসিন বিতরণের আওতা বাড়াচ্ছি। তবে এটি এখনও সম্পূর্ণ হয়নি।

এদিকে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হওয়ার পর হাসপাতালে ভর্তির হার গত দুই সপ্তাহে ৪০ শতাংশ বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছে সায়েন্স অ্যাডভাইজরি টেবিল। এক্ষেত্রে নতুন ভ্যারিয়েন্ট সংক্রমণে আধিপত্য বিস্তার করছে বলে মন্তব্য ব্রাউনের। তিনি বলেন, অপেক্ষাকৃত তরুণদের এখন হাসপাতালে যেতে হচ্ছে এবং আইসিইউতে ভর্তির ঝুঁকি দ্বিগুণ বেড়ে গেছে। মৃত্যুর ঝুঁকিও বেড়েছে দেড়গুণ। 

 

 

 

 

 

 

 

Comments