রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ১২:৪১ am

’স্কুলগুলো আমরা নিরাপদে খুলে দিতে যাচ্ছি’

’স্কুলগুলো আমরা নিরাপদে খুলে দিতে যাচ্ছি’

এডুকেশন মিনিস্টার স্টিফেন ল্যাচে...ছবি/ অটোয়া সিটিজেন

অন্টারিওর অধিকাংশ স্কুলে সশরীরে পাঠদান ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী স্টিফেন ল্যাচে কুইন’স পার্কে বুধবার এ ঘোষণা দিয়ে বলেন, স্কুলগুলো আমরা নিরাপদে খুলে দিতে যাচ্ছি। আপনাদের সহায়তা ও সতর্কতার ফলে গোষ্ঠী সংক্রমণ কমে এসেছে। যার ফল হিসেবে আমরা স্কুলগুলো খোলা রাখতে পারব।
ছুটির পর প্রদেশজুড়ে লকডাউনের অংশ হিসেবে বক্সিং ডে থেকেই অন্টারিওর সব স্কুল বন্ধ করে দেওয়া হয়। সাউদার্ন অন্টারিওর এলিমেন্টারি স্কুলগুলো ১১ জানুয়ারি ও সেকেন্ডারি স্কুলগুলো এর দুই সপ্তাহ পর খোলার পরিকল্পনা থাকলেও ছুটির পর সংক্রমণ হঠাৎ বাড়তে থাকায় সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে ফোর্ড সরকার। এরপর থেকে করোনাভাইরাসের গোষ্ঠী সংক্রমণ কমতে থাকে এবং সাপ্তাহিক ভিত্তিতে দৈনিক নতুন সংক্রমণ গড়ে ২ হাজার ৮৫০ থেকে ১ হাজার ৮০০তে নেমে এসেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে নর্দার্ন অন্টারিও এবং সাউদার্ন অন্টারিওর ১১টি জনস্বাস্থ্য ইউনিটের আওতাধীন স্কুল খোলার অনুমতি পেয়েছে।
স্টিফেন ল্যাচে বলেন, তবে পরিস্থিতি যদি বদলে যায় এবং সংক্রমণ আবার খারাপের দিকে যেতে থাকে তাহলে জনস্বাস্থ্য বিভাগের চিফ মেডিকেল অফিসারের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণে আমরা দ্বিধা করব না। স্থানীয় মেডিকেল অফিসারদের হাতে তাদের কমিউনিটির স্কুল বন্ধের ঘোষণা দেওয়ার অধিকার এখনও আছে। এ কারণেই সংক্রমণ প্রবণতার দিকে নজর রাখার পাশাপাশি স্থানীয় মেডিকেল অফিসারদের সঙ্গে আমরা নিবিড় যোগাযোগ রাখছি।
ফল টার্মে অন্টারিওর প্রায় অর্ধেক স্কুলে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ দেখা দিয়েছিল। তবে স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা একাধিকবার এই যুক্তি দিয়েছেন যে, সংক্রমণের বেশিরভাগই হয়েছে কমিউনিটি থেকে, স্কুল থেকে নয়।
স্টিফেন ল্যাচে বলেন, বাড়তি সুরক্ষার ব্যবস্থা করেই স্কুলগুলো খোলা হবে। এর অংশ হিসেবে লক্ষণ নেই এমন শিক্ষার্থী ও কর্মীদের কোভিড পরীক্ষা করা হবে। পাশাপাশি গ্রেড ওয়ান থেকে গ্রেড থ্রি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের বাধ্যতামূলকভাবে মাস্ক পরতে হবে।
এর আগের এক ঘোষণায় প্রদেশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, সংক্রমণের হার বেশি এমন এলাকা বিশেষ করে টরন্টো, পিল ও ইয়র্ক রিজিয়ন, উইন্ডসর-এসেক্স হ্যামিলটনের শিক্ষার্থীদের অন্ততপক্ষে ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়িতে বসেই পাঠ নিতে হবে। তবে তার আগেই এসব অঞ্চলের শিক্ষার্থীরাও শ্রেণিকক্ষে ফিরতে পারবে বলে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে।
স্কুল খোলার পর মার্চের ছুটি অথবা শিক্ষাবর্ষে কোনো পরিবর্তন আনা হবে কিনা সেটি এখনও পরিস্কার নয়। এ ব্যাপারে শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য, আগামী সপ্তাহে আমরা এ ব্যাপারে আরও তথ্য আপনাদের জানাতে পারব।

Comments