Sat 28th Nov 2020, 2:04 am

টরন্টোতে একমাসে ৯ হাজার ৭১৯ টি স্পিড টিকেট ইস্যু

টরন্টোতে একমাসে ৯ হাজার ৭১৯ টি স্পিড টিকেট ইস্যু

বাংলামেইল ডটকম ডেস্ক

যানাবাহনের জন্য বেঁধে দেওয়া সর্বোচ্চ গতিসীমা লঙ্ঘনের দায়ে ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত ৯ হাজার ৭১৯টি টিকেট ইস্যু করেছে অটোমেটেড স্পিড এনফোর্সমেন্ট (এএসই) ডিভাইস। এ সংখ্যা পূর্ববর্তী মাসের চেয়ে ৬৫ শতাংশ কম। কর্মসূচিটি চালুর দ্বিতীয় মাসে শহরের ৫০টি স্থানে ১৫ হাজার নোটিশ ইস্যু করা হয়েছিল। আর প্রথম মাসে ইস্যু করা হয়েছিল ২২ হাজার ৩০১টি।
নর্থ ইয়র্কের ডন মিলস ও ইগলিনটনের পাশর্^বর্তী বুলভার্ড গেটওয়েতে স্থাপিত এএসইর ক্যামেরায় এক মাসে সবচেয়ে বেশি ৯৫৫টি গতিসীমা লঙ্ঘনের ঘটনা ধরা পড়ে, পুরো মাসে সংঘটিত এ ধরনের ঘটনার যা ১০ শতাংশ। সবচেয়ে বেশি জরিমানা করা হয়েছে ইগলিনটন এভিনিউয়ের বিকনেল এভিনিউ ও কিল স্ট্রিট এলাকায়। ঘণ্টায় ৩০ কিলোমিটার গতিসীমার এলাকায় ঘণ্টায় ৭৮ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালানোর অপরাধে ৭০৬ ডলার জরিামানা আদায় করা হয়েছে।
একই অপরাধ একাধিকবার করেছেন এমন চালকের সংখ্যা ১ হাজার ১৯৮ থেকে ৬০৪ জনে নেমে এসেছে। বারথাস্ট স্ট্রিটের প্যাট্রিসিয়া এভিনিউ এবং স্টিলেসে এভিনিউ ওয়েস্ট এরিয়ায় সবচেয়ে বেশিবার গতিসীমা লঙ্ঘনের ঘটনায় ছয়জনকে ছয়টি নোটিশ দেওয়া হয়েছে। তবে এএসইর এই নোটিশে চালকের ড্রাইভিং রেকর্ডে কোনো নেগেটিভ পয়েন্ট যোগ করবে না।
এ সপ্তাহে নতুন ৫০টি স্থানে এএসই ডিভাইস বসানো হচ্ছে। টরন্টো সিটি মেয়র জন টরি বলেন, কর্মসূচিটির উদ্দেশ্য হচ্ছে স্কুল ও কমিউনিটি সেফটি জোনগুলোতে যাতে গতীসামা লঙ্ঘনের ঘটনা না ঘটে। এটা পরিস্কার যে, অধিকাংশ চালকই তাদের আচরণে পরিবর্তন আনছেন। নতুন স্থানে ডিভাইসটি স্থাপনের ফলে আশা করি নভেম্বরে আরও ভালো ফল পাওয়া যাবে।

 

 

 

Comments