Sat 28th Nov 2020, 2:47 am

কলকাতার বিদায়, প্লে-অফে হায়দরাবাদ

কলকাতার বিদায়, প্লে-অফে হায়দরাবাদ

বাংলামেইল ডটকম ডেস্ক

বাঁচা-মরার ম্যাচে ব্যাটে-বলে প্রতিরুদ্ধ হয়ে উঠল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আগেই শীর্ষ স্থান নিশ্চিত করে ফেলা মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে হারিয়ে জায়গা করে নিল প্লে-অফে। মঙ্গলবার আইপিএলে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে মুম্বাইকে ১০ উইকেটে হারিয়েছে হায়দরাবাদ। ডেভিড ওয়ার্নারদের এই জয়ের ফলে লিগ পর্ব থেকেই বিদায় নিশ্চিত হয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্সের। হায়দরাবাদের সমান ১৪ পয়েন্ট হলেও নেট রানরেটে পিছিয়ে পড়েছে কলকাতা।

সমীকরণটা অবশ্য পরিষ্কারই ছিল। হায়দরাবাদ হারলে কলকাতা টিকিট পাবে প্লে-অফের। তাই কলকাতার খেলোয়াড় থেকে শুরু করে ভক্তদের নজর ছিল এ ম্যাচে।

কিন্তু তাদের হতাশায় ডুবিয়েছেন বাংলার ছেলে ঋদ্ধিমান সাহা ও তার দল। ১৫০ রান তাড়া করতে নেমে ঋদ্ধিমান হায়দরাবাদের হয়ে খেলেছেন ৪৫ বলে অপরাজিত ৫৮ রানের ইনিংস।

আরেক ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার ছিলেন বিস্ফোরক। ৫৮ বলে ১০ চার ও ১ ছক্কায় খেলেন ৮৫ রানের অপরাজিত ইনিংস। জাসপ্রিত বুমরাহ ও ট্রেন্ট বোল্টকে বিশ্রামে রেখে মুম্বাইয়ের বোলিং যেন হয়ে পড়েছিল একেবারেই দুর্বল। এর আগে হায়দরাবাদ বোলাররা মুম্বাইকে ৮ উইকেটে ১৪৯ রানের বেশি করতে দেয়নি। ইনজুরি কাটিয়ে ফেরা অধিনায়ক রোহিত শর্মা (৪) ব্যর্থ হয়েছেন। থিতু হয়েও বড় ইনিংস খেলতে পারেননি কুইন্টন ডি কক (২৫), সূর্য কুমার যাদব (৩৬), ইশান কিষান (৩৩)। শেষ দিকে ২৫ বলে ২ চার ও ৪ ছক্কায় ৪১ রান করেন কিয়েরন পোলার্ড।

হায়দরাবাদের পক্ষে ৩ উইকেট নিয়ে সন্দীপ শর্মা সবচেয়ে সফল। তবে ৪ ওভারে মাত্র ১৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন শাহবাজ নাদিম। জ্যাসন হোল্ডারের দখলেও ২ উইকেট। দারুণ বোলিংয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন নাদিম।

লিগ পর্ব শেষে হায়দরাবাদ উঠে এসেছে তিন নম্বরে। চারে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু। শুক্রবার এলিমিনেটর ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল। এর আগে বৃহস্পতিবার প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে খেলবে শীর্ষে থাকা মুম্বাই ও দ্বিতীয় স্থানে থাকা দিল্লি। প্রথম কোয়ালিফাইয়ারে হেরে যাওয়া দল এলিমিনেটর ম্যাচে জয়ীদের বিপক্ষে খেলবে ৮ নভেম্বর। ১০ নভেম্বর ফাইনাল।

Comments