Thu 3rd Dec 2020, 3:07 am

কানাডায় দ্বিতীয় ধাপের প্রকোপে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে পারে : থেরেসা ট্যাম

কানাডায় দ্বিতীয় ধাপের প্রকোপে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে পারে : থেরেসা ট্যাম

বাংলামেইল ডটকম ডেস্ক

কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন প্রভিন্সের সিটি "ডেঞ্জার জোন" ও "হাই এলার্ট" ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে দেশজুড়ে করোনার দ্বিতীয় ধাপের প্রকোপে কোভিড বিশেষায়িত হাসপাতালে ভর্তি এবং মৃত্যুর সংখ্যা বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন শীর্ষ চিকিৎসক থেরেসা ট্যাম। তিনি জানান, গত সপ্তাহে হাসপাতালে প্রতিদিন গড়ে ১ হাজার ১০ জন করে চিকিত্সা নিয়েছেন যার মধ্যে ২০ শতাংশ নিবিড় পরিচর্যায় ছিলেন। ছয় সপ্তাহ আগে প্রতিদিন গড়ে ৬ জনের মৃত্যু হলেও গেলো সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে ২৩ জন মারা গেছেন। ট্যাম আরো বলেন, এরইমধ্যে দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ ও গুরুতর অসুস্থতার সংখ্যা বেড়েছে। কানাডার জনস্বাস্থ্য সংস্থার পরিসংখ্যান অনুসারে, গেলো সপ্তাহে সক্রিয় করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়েছে ১৬ শতাংশ। 

উল্লেখ্য, কানাডার টরেন্টোতে কোভিড-১৯ টেস্টে পজিটিভ হার গত সপ্তাহে ৪.৪ শতাংশ ছুঁয়েছে এবং প্রদেশটির দ্বারা উদ্ধৃত "উচ্চ সতর্কতা" প্রান্তিকের দ্বিগুণ হয়ে গেছে। বুধবার বিকেলে সিটি হলে এক ব্রিফিংয়ের সময় স্বাস্থ্য বিষয়ক মেডিকেল অফিসার ডা. আইলিন ডি ভিলা বলেন, পজিটিভিটি হারটি কেবলমাত্র একটি সূচক হলেও তার সাম্প্রতিক খাড়া বৃদ্ধি উদ্বেগের কারণ, বিশেষত যখন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা এবং হাসপাতালে ভর্তির হারের পাশাপাশি বিবেচনা করা। এদিকে কানাডার ব্রিটিশ কলম্বিয়ায় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা বুধবার নতুন করে ২০৩ জনের করোনাভাইরাসে আক্রান্তের ঘোষণা করেছেন। যা এখন পর্যন্ত একদিনে সর্বোচ্চ।

কানাডায়  প্রথম করোনাভাইরাস ব্রিটিশ কলম্বিয়াতে শনাক্ত হয়েছিল। কানাডার আলবার্টায় ইতিমধ্যে শীত ও তুষারপাত শুরু হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের অনেকেই মনে করছেন একদিকে শীত, তুষারপাত আর অন্যদিকে করোনার প্রকোপ। সবমিলে আলবার্টানরা এক কঠিন সময়ের পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।

Comments